বাজার থেকে না কিনে ঘরেই বানান এই মশলাগুলো, জেনে নিন প্রয়োজনীয় ৮টি মশলা তৈরির রেসিপি

বাজার থেকে না কিনে ঘরেই বানান এই মশলাগুলো, জেনে নিন প্রয়োজনীয় ৮টি মশলা তৈরির রেসিপি

বাজার থেকে না কিনে ঘরেই বানান এই মশলাগুলো, জেনে নিন প্রয়োজনীয় ৮টি মশলা তৈরির রেসিপি

আজকের রেসিপি আয়োজনে রয়েছে ঘরে ৮টি মশলা তৈরির প্রনালী। খুব সহজে এবং
তাড়াতাড়ি এই পদগুলো তৈরি করা যায়। চলুন জেনে নিই-

কাচ্চি বিরিয়ানি মসলা

উপকরণঃ

সাদা গোল মরিচ দেড় টেবিল চামচ ,
এলাচি ১৬ টি ,
দারুচিনি পাউডার হাফ টেবিল চামচ ,
জিরা ১ টেবিল চামচ ,
জয়ত্রি হাফ টেবিল চামচ ,
জয়ফল ১ টি (মাঝারি আকারে ) ,
কাবাব চিনি ১ টেবিল চামচ ,
শাহ জিরা হাফ টেবিল চামচ ,
কাজু বাদাম ১৪ টি ,
লবন হাফ চা চামচ ।

প্রনালীঃ

শুকনো কড়াইতে লবন এবং কাজু বাদাম এবং দারুচিনি পাউডার বাদ রেখে বাকি সব
মসলা টেলে নিন । খেয়াল রাখুন মসলা গুলো বেশি টালা না হয় । বেশি টাললে
মসলা পুড়ে কালো হয় যাবে । এবার মসলা নামিয়ে রেখে বাদাম গুলো হালকা শুকনো
টেলে নিন । টালা মসলা এবংবাদাম সাথে লবন দিয়ে বেন্ডারে গুড়া করে নিন ।

মসলাগুলো ঠান্ডা হলে মিহি গুড়া হবে । গরম গরম গুড়া করলে মিহি হয় না । লবন
কিন্তু অল্প দিবেন । আমি হাফ চা চামচ দিয়েছি । রান্না সময় খেয়াল রাখবেন যে
মসলায় লবন দেওয়া আছে একটু । গুড়া করা গরম মসলা টাইট ঢাকনা আছে এমন
বোতলে ভরে আপনি ফ্রিজে বা বাহিরে রেখে অনেক দিন ব্যবহার করতে পারবেন ।

বিরিয়ানি মসলা / তেহারি মসলা

উপকরনঃ

(ক) গুড়া করার জন্য:

৪ টেবিল চামচ ধনিয়া,
জিরা ২ টেবিল চামচ ,
১ টেবিল চামচ মৌরি,
২ চা চামচ শাহ জিরা,
৪ টা স্টার আনীস (চক্র ফুল),
৬ টি বড় এলাচ,
১৫ ছোট এলাচ,
২—৩ টা দারুচিনি মাঝারি সাইজ,
১/২ চা চামচ (হাফ) (লবঙ্গ),
১/২ টেবিল চামচ গোল মরিচ,
৪ তেজ পাতা ,
২ চা চামচ জৈত্রী,
১ টা বড় জায়ফল,
১ চা চামচ কাবাব চিনি,
পোস্ত দানা ১ চা চামচ ,
১ চা চামচ রসুন পাউডার,
পেয়াজ পাউডার ১ চা চামচ ,
১ চা চামচ শুকনো মরিচ আধা ভাঙ্গা,
২ টেবিল চামচ ক্বাশমিরি মরিচ গুড়া।

( খ) আস্ত রাখার জন্য:

২ চা চামচ শাহ জিরা,
৫/৬ ছোট এলাচ,
৩—৪ টি বড় এলাচ,
১/২ চা চামচ কাবাব চিনি।

প্রণালিঃ

রনালিশুকনো মরিচ হালকা টেলে ভেতরে বিচি বের করে আধা ভাঙ্গা করে গুড়া করে
নিতে হবে ।
এবার উপকরন ( ক ) রসুন ,পেয়াজ গুড়া
বাধ দিয়ে বাকি সব মসলা কড়াইতে হালকা ভেজে নিয়ে ঠান্ডা করে গুড়া করে নিতেহবে
।গুড়া করা মসলা সাথে এখন মরিচ আধা ভাঙ্গা পেয়াজ ,রসুন গুড়া , পাপরিকা গুড়া
,এবং আস্ত সব গরম মসলা মিলিয়ে ।এয়ার টাইট বোয়ম ভরে ফ্রিজ রেখে অনেক দিন
বিরিয়ানি মসলা ব্যবহার করা যাবে।ফ্রিজ না রেখে ও ব্যবহার করাযাবে ।

গরম মসলা গুড়া

উপকরনঃ

আস্ত ধনিয়া ৪ টেবিল চামচ ,
আস্ত জিরা ৩ টেবিল চামচ ,
মৌরি ১ টেবিল চামচ ,
বড় এলাচি ৫ টি ,
গোলমরিচ ১ টেবিল চামচ ,
ছোট এলাচি ১৬ টি ,
দারুচিনি ৩/৪ টুকরা ,
জায়ফল দেড় টা ( ছোট আকারে ),
তেজপাতা ৫ টি (ছোট ছোট ) ,
লবঙ্গ ১/২ টেবিল চামচ ,
স্টার আনিশ ৪ টি ( ছোট )।

প্রনালীঃ

শুকনো কড়াইতে সব মসলা টেলে নিন । খেয়াল রাখুন মসলা গুলো বেশি টালা না
হয় । বেশি টাললে মসলা পুড়ে কালো হয় পাবে । টালা মসলা ঠান্ডা হলে গুড়া করে
নিন তাহলে মিহি গুড়া হবে । গরম গরম গুড়া করলে মিহি হবে না । গুড়া করা
গরম মসলা টাইট ঢাকনা আছে এমন বোতলে ভরে আপনি ফ্রিজে বা বাহিরে রেখে
অনেক দিন ব্যাবহার করতে পারবেন ।

চাট মসলা

উপকরনঃ

১০ টি শুকনা মরিচ ,
১/২ হাফ টেবিল চামচ পাচঁফোড়ন ,
১ টেবিল চামচ ঝিরা ,
১ চা চামচ মৌরি,
গোল মরিচ ১ চা চামচ ,
১ চা চামচ বীট লবন ,
২ চামচ ড্রাই ম্যেঙ্গ পাউডার ( আম চূর পাউডার ) ১ আদা পাউডার ,
১ চা চামচ লবন ।

প্রনালিঃ

আম চূর এবং বীট লবন ,আদা পাউডার, লবন বাদ রেখে সব মসলা হালকা টেলে
নিতে হবে । মসলা যদি বেশি টালা হয় তাহলে মসলা কালো হয়ে যাবে এবং তিতা
লাগবে আবার কম ও যদি টালা হয় মসলা আসল স্বাদ পাওয়া যাবে না ।তাই মসলা
সেই ভাবে টেলে নিতে হবে ,বেশি ভাজা ও হবেনা আবার কম ওনা । টালা শেষ হলে
ঠান্ডা করে গুড়া করে নিয়ে বীট লবন ,এবং আম চূর লবন , অাদা পাউডার মিশিয়ে
নিয়ে তৈরি করা চাট মসলা এয়ার ট্রাইট বোতল ভরে অনেক দিন সংরক্ষন করা যাবে ।

মুরগি রোস্ট মসলা

উপকরণঃ

ধনিয়া ৪ টেবিল চামচ,
জয়ফল ২ টি ( মাঝারি আকারে ) ,
জয়ত্রি ১/২ টেবিল চামচ ,
পোস্তদানা ১ টেবিল চামচ ,
শাহ জিরা ১ টেবিল চামচ ,
সাদা গোল মরিচ ১/২ টেবিল চামচ ,
ছোট এলাচি ১৮ টি ,
বড় এলাচি ২ টি ( মাঝারি ) ,
দারুচিনি ৩/৪ টি ছোট আকারে ভাঙ্গা ,
তেজপাতা ২ টি ,
লবঙ্গ ৭/৮ টি,
পেস্তা বাদাম ২০ টি ,
জাফরান ২/৩ টি সুতা,
লবন ১ চা চামচ ।

প্রনালীঃ

শুকনো কড়াইতে লবন এবং পেস্তা বাদাম এবং জাফরান বাদ রেখে বাকি সব মসলা
টেলে নিন । খেয়াল রাখুন মসলা গুলো বেশি টালা না হয় । বেশি টাললে মসলা
পুড়ে কালো হয় পাবে । এবার মসলা নামিয়ে রেখে বাদাম গুলো হালকা শুকনো
টেলে নিন। টালা মসলা এবংবাদাম সাথে লবন এবং জাফরান দিয়ে গুড়া করে নিন ।
মসলা গুলো ঠান্ডা হলে মিহি গুড়া হবে । গরম গরম গুড়া করলে মিহি হয় না ।

লবন কিন্তু অল্প দিবেন । আমি ১ চা চামচ দিয়েছি । রান্না সময় খেয়াল রাখবেন যে
রোস্টার মসলা একটু লবন দেওয়া আছে । গুড়া করা গরম মসলা টাইট ঢাকনা আছে
এমন বোতলে ভরে আপনি ফ্রিজে বা বাহিরে রেখে অনেক দিন ব্যাবহার করতে পারবেন
। জাফরান দেওয়াতে মসলা টা মাঝে শাহী শাহী একটি খুশবু আসবে। রোস্ট এর মধ্যে
কাচা জিরা বাটা দিলে দারুন সুস্বাদু হয় রোস্টের গুড়া করা মসলা সাথে আমি ঝিরা
দেই নাই । আপনি এই মসলা বানিয়ে রাখবেন যখন রোস্ট রান্না করবেন তখন
কাচাঁ জিরা বেটে ব্যবহার করেন ।

কারি পাউডার

উপকরণঃ

ধনিয়া ৩ টেবিল চামচ ,
জিরা ২ টেবিল চামচ ,
মেথি হাফ টেবিল চামচ ,
আস্ত সরিষা ১ চা চামচ ,
গোল মরিচ ১ চা চামচ ,
এলাচ ৬ টি ,
দারুচিনি ২/৩ টি( ছোট ছোট ভাঙ্গা স্টিক) ,
তেজপাতা ২ টি,
শুকনা মরিচ ৭ টি ।

( খ)পাউডার মসলা :

হলুদ গুড়া ১ টেবিল চামচ ,
কাশ্বমিরা লাল মরিচ গুড়া ১ টেবিল চামচ অথবা পাপরিকা গুড়া ,
পেয়াজ পাউডার ১ চা চামচ ,
রসুন পাউডার ১ চা চামচ ,
আদা পাউডার ১ চা চামচ ,
লবন ১ চা চামচ ।

প্রনালিঃ

উপকরন (ক) সব শুকনো মসলা গুলো কড়াইতে টেলে নিন । মসলা গুলো ঠান্ডা
হলে উপকরন( খ) গুড়া মসলা এবং লবন দিয়ে ব্রেন্ডারে গুড়া করে নিন সব মসলা এক
সাথে । এয়ার টাইট বক্স মসলা ভরে ফ্রিজে রেখে অনেক দিন ব্যবহার করতে পারবেন ।

চাইনিজ ফাইভ স্পাইস রেসিপি

উপকরনঃ

৮ টি স্টার অনিস ,
মৌরি ১ টেবিল চামচ ,
লবঙ্গ ১/২ টেবিল চামচ ,
১ টেবিল চামচ গোলমরিচ গুড়া ,
দারুচিনি লম্বা একটি টুকরা।

প্রণালিঃ

সব গুলো মসলা কড়াইতে টেলে ঠান্ডা করে ব্রেন্ডারে গুড়া করে এয়ার টাইট বক্সে রাখুন
। গরুর মাংস ,মুরগি মাংস , চাইনিজ অনেক রান্না এই মসলা ব্যবহার করা হয় ।

হালিম মসলা

উপকরনঃ

১ টেবিল চামচ জিরা ,
১/২ টেবিল চামচ ধনিয়া ,
৪ টি এলাচি ,
১ চা চামচ গোলমরিচ ,
৩/৪ টি লবঙ্গ ,
১/২ হাফ চা চামচ মৌরি ,
হাফ জয়ফল।

প্রণালিঃ

সব মসলা টেলে গুড়া করে নিতে হবে । যদি ঝাল পছন্দ করো তাহলে ৪/৫ টি
শুকনা মরিচ টেলে এক সাথে গুড়া করে নিতে পারো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *