শুক্তো রেসিপি ” বাঙালি স্টাইলে “

শুক্তো রেসিপি " বাঙালি স্টাইলে "

শুক্তো রেসিপি ” বাঙালি স্টাইলে “

শুক্ত হলো একটি নিরামিষ রেসিপি।
শুক্ত রান্না বাঙ্গালীর সব বাড়ীতেই প্রায় হয়ে থাকে। গরম ভাতের সঙ্গে শুক্তো খেতে যে কী ভালো লাগে
সেটা কোনও বাঙালিকে বুঝিয়ে বলতে হয় না৷

খুব সহজে কি ভাবে বানাবেন এই শুক্ত ? দেখেনিন রেসিপি-

উপকরন-

১টি করলা (স্লাইস করে কাটা),
১টি রাঙা আলু,
১ কাপ বেগুন (চৌকো করে কাটা),
১ কাপ কুমড়ো (চৌকো করে কাটা),
১০টি সজনে ডাটা,
১/২ কাপ কাঁচা পেঁপে,
১/২ কাপ ঝিঙে,
১/২ কাপ কাঁচকলা,
১/২ টেবিল চামচ সর্ষে পেস্ট,
১ টেবিল চামচ পোস্ত পেস্ট,
১ টেবিল চামচ চিনি,
১/২ কাপ দুধ,
২ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো,
১ চা চামচ জিরে গুঁড়ো,
১ চা চামচ মেথি,
১টি গোটা শুকনো লঙ্কা,
১টি তেজ পাতা,
১ টেবিল চামচ আদা পেস্ট,
১ টেবিল চামচ ঘি,
সর্ষে তেল (প্রয়োজন অনুযায়ী),
নুন (দরকার মত)৷

পদ্ধতি-

ফ্রাইং প্যানে সর্ষে তেল গরম করুন৷
এবার তেলে বড়ি ছেড়ে সেগুলিকে বাদামি করে ভেজে নিন৷

এবার ওই তেলে করলাগুলিকে ভালো করে ভেজে নিতে হবে৷
পেপার তোয়ালেতে জড়িয়ে বাড়তি তেল ঝড়িয়ে নিয়ে একপাশে রেখে দিন এগুলি৷

ফ্রাইং প্যানে আরও এক চামচ তেল দিয়ে ফের গরম করে নিন৷
এবার ওতে শুকনো লঙ্কা, তেজপাতা আর রাঁধুনি দিয়ে দিন৷

মশলা ফাটতে শুরু করলে সবজিগুলি দিন৷
অল্প ভাজা ভাজা হলে ওর মধ্যে নুন এবং হলুদ গুঁড়ো দিতে হবে৷

অল্প আঁচে ৫ মিনিট মতো রান্না হতে দিন৷
এবার ওতে পোস্ত এবং সর্ষে পেস্ট দিয়ে ৫ মিনিট নাড়াচাড়া করুন৷

জিরে গুঁড়ো এবং চিনি দিন৷
১ কাপ জল দিয়ে ঢেকে দিন৷

১৫ মিনিট মত লাগবে সবজি সেদ্ধ হতে৷
হয়ে গেলে বড়ি এবং করলা ভাজা ওতে দিন৷
আদা পেস্ট দিন৷

৫ মিনিট নাড়াচাড়া করার পর ওর মধ্যে দুধ ও ঘি দিয়ে রান্না হতে দিন৷
ফুটতে শুরু করলে গ্যাস বন্ধ করে দিন৷

ঠান্ডা হলে গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *