প্রতিদিন কেন পান করবেন এক কাপ তুলসি চা। জানুন তুলসি চা পান এর উপকারিতা!

প্রতিদিন কেন পান করবেন এক কাপ তুলসি চা। জানুন তুলসি চা পান এর উপকারিতা!

প্রতিদিন কেন পান করবেন এক কাপ তুলসি চা। জানুন তুলসি চা পান এর উপকারিতা!

ঔষধি গুণের জন্য ভারতীয় উপমহাদেশে সমাদৃত তুলসি পাতা। আয়ুর্বেদে বিভিন্ন
রোগের প্রতিকার হিসেবে একে ব্যবহার করা হয়। তুলসিতে আছে এমন অনেক
অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা কিনা শরীর সুস্থ রাখতে কাজে আসে। শুকনো, টাটকা বা
গুঁড়ো- সব ধরণের তুলসি পাতাই স্বাস্থ্যের উপকারে আসে।

দৈনিক তুলসি চা পান করাটা তো খুবই উপকারী। জেনে নিন এই চায়ের স্বাস্থ্যগুণ-

১) ফুসফুসের সমস্যা দূর করেঃ

ঠাণ্ডা, সর্দি, কাশিতে তুলসি চায়ের উপকারিতা আমরা সবাই জানি। কিন্তু
অ্যাজমা এবং ব্রঙ্কাইটিস উপশমেও তা কাজে আসে। এতে থাকে
ইমিউনোমডিউলেটরি (রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো) , অ্যান্টিটাসিভ (কাশি কমানো) এবং এক্সপেকটোরান্ট (কফ বের
করা) উপাদান। এছাড়া বুকে কফ জমে থাকাও প্রতিরোধ করে তা।

২) স্ট্রেস কমায়ঃ

কিছু গবেষণায় অনুযায়ী, শরীরে স্ট্রেস হরমোন কর্টিসলের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখে
তুলসি চা। এমনকি ডিপ্রেশনের কিছু উপসর্গ কমাতেও এই চা কাজে আসে।

৩) ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখেঃ

সাধারণ দুধ-চিনি দেওয়া চা ব্লাড সুগার বাড়ায়। অন্যদিকে দৈনিক তুলসি চা পান
করা হলে শরীরে কার্বোহাইড্রেট ও ফ্যাট মেটাবলিজম বাড়ে। ফলে ব্লাড সুগার
নিয়ন্ত্রণে থাকে।

৪) দাঁত ও মুখের স্বাস্থ্য ভালো রাখেঃ

তুলসি চায়ের অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল বৈশিষ্ট্য মুখের জীবাণু দূর করে। এছাড়া তা
মাউথ ফ্রেশনারের মতো মুখের দুর্গন্ধ দূর করতেও কাজে আসে।

৫) আর্থ্রাইটিসের উপশম করেঃ

তুলসিতে থাকা একটি উপাদান, ইউজেনলের অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি বৈশিষ্ট্য
রয়েছে। ফলে তা অস্থিসন্ধি ও পেটের ইনফ্লামেশন দূর করে এবং ব্যথা কমায়।

কী করে তৈরি করবেন তুলসি চা?

তুলসি চা তৈরি করা খুবই সহজ। গরম পানিতে ২-৩টি তুলসি পাতা দিয়ে ফুটিয়ে
নিন। পানির রং ও সুবাস পরিবর্তন হয়ে এলে আঁচ বন্ধ করে রাখুন তিন মিনিট।
এরপর চা ছেঁকে নিন। এতে অল্প করে মধু ও লেবুর রস দিয়ে পান করতে
পারেন। এছাড়া অল্প করে দারুচিনি গুঁড়ো এবং আদা দিতেও পারেন।

যে ৮টি শারীরিক সমস্যা দূর করবে প্রতিদিন মাত্র ১কাপ তুলসি চা

https://www.youtube.com/watch?v=vkYh1LgVR3k

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *